সিলেট বিভাগহবিগঞ্জ

জাপান বাংলাদেশ হাসপাতাল হবিগঞ্জ ডাক্তার তালিকা ও ফোন নাম্বার

জাপান বাংলাদেশ হাসপাতাল হবিগঞ্জ ডাক্তার তালিকা ও ফোন নাম্বার পেতে আমাদের লেখা গুলো মনোযোগ সহকারে পড়তে হবে। আমরা আমাদের ওয়েবসাইটে আপনাদের সুবিধার জন্য নিয়ে এসেছি জাপানবাংলাদেশ হাসপাতালের সকল বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের সাথে যোগাযোগ করার মাধ্যম। 

আপনারা আমাদের ওয়েবসাইট থেকে এই সকল বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের চেম্বারে সিরিয়াল দেয়ার নাম্বারটি পেয়ে যাবেন খুব সহজে। এবং যেকোন সমস্যার জন্য এই হাসপাতালে চিকিৎসা গ্রহণ করতে পারবেন। জাপান বাংলাদেশ হাসপাতাল যে সকল ডাক্তার চিকিৎসা দেয় তারা আধুনিক যন্ত্রপাতির মাধ্যমে পরীক্ষানিরীক্ষা করার পর এইসকল চিকিৎসা দেয়। 

আপনাদের যেকোন সমস্যার জন্য আপনার এই হাসপাতলে আসতে পারেন। আপনারা জেনে আরো আনন্দিত হবেন যে বাংলাদেশের প্রায় প্রতিটি হাসপাতালে বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের তালিকা ও ফোন নাম্বার দিতে চলেছে আমাদের ওয়েবসাইটে। আপনাদের সুবিধার জন্যই আমাদের এই আয়োজন টি করা। ঘরে বসে আপনারা এই সকল ডাক্তারদের সকল তথ্য সংগ্রহ করে তাদের  চিকিৎসা গ্রহণ করতে পারবেন।

ডাক্তারের তালিকা

জাপান বাংলাদেশ হাসপাতাল হবিগঞ্জ। হাসপাতালটি 24 ঘন্টা খোলা থাকে। এখানে রয়েছে সকল প্রকার রোগের চিকিৎসার ব্যবস্থা। আধুনিক যন্ত্রপাতির মাধ্যমে পরীক্ষানিরীক্ষা করার পরে এখানে রোগীকে চিকিৎসা প্রদান করা হয়। যে কোন রোগের জন্য জন্য যদি সঠিক চিকিৎসকের কাছে যান তবেই তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে ওঠার সম্ভব।

 আমাদের ওয়েবসাইটে আসলে আপনারা জাপানবাংলাদেশ হাসপাতালের সকল বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের তালিকা পেয়ে যাচ্ছেন খুব সহজেই এবং তাদের সাথে যোগাযোগ করার সকল মাধ্যমে পেয়ে যাবেন আমাদের ওয়েবসাইটে। জাপানবাংলাদেশ হাসপাতালের রয়েছে স্ত্রী ও প্রসূতি রোগীদের জন্য চিকিৎসার ব্যবস্থা। আল্ট্রাসনোগ্রাফির মাধ্যমে এখানে প্রেগন্যান্ট মহিলাদের সকল চেকআপের ব্যবস্থা রয়েছে। 

আল্ট্রাসনোগ্রাফির মাধ্যমে বোঝা যায় প্রেগন্যান্ট মহিলাদের বাচ্চা কেমন হয়ে আছে কত বড় হয়েছে কোন পজিশনে আছে। নিয়মিত চেকআপ করলে প্রেগন্যান্ট মহিলাদের সবসময় ভালো থাকে এবং এই হাসপাতালেই ডেলিভারির ব্যবস্থা রয়েছে। নরমাল ডেলিভারি সিজার এর ব্যবস্থা করা হয় এই হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের মাধ্যমে।

 আবার আলট্রাসনোগ্রাফির মাধ্যমে মহিলাদের সকল রোগ নির্ণয় করা সহজ হয়। যেমন মহিলাদের জরায়ুতে টিউমার কিডনিতে পাথর আলসারের সমস্যা এপেন্ডিসাইটিস এর সমস্যা সকল রোগ নির্ণয় করা যায় এবং এই হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের মাধ্যমে তাদের অপারেশন এর ব্যবস্থা করা হয়।

ডাক্তারের ফোন নাম্বার

জাপান বাংলাদেশ হাসপাতাল হবিগঞ্জ এখানে সকল প্রকার হার্ট এর  চিকিৎসা প্রদান করা হয় বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের মাধ্যমে। আধুনিক যন্ত্রপাতির মাধ্যমে হার্টের রোগীদের নিয়মিত চেকআপ করা হয় এই হাসপাতালে। আবার এখানে ওপেন হার্ট সার্জারির ব্যবস্থা রয়েছে বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের মাধ্যমে অনেক সময়ই বাইরে থেকে ডাক্তার নিয়ে এসে‌ এখানে অপারেশন করানোর ব্যবস্থা করা হয়। 

জাপান বাংলাদেশ হাসপাতাল এ রয়েছে নাককানগলা জন্য বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের ব্যবস্থা। এখানে আরো চিকিৎসা দেওয়া হয় চোখের সকল রোগীকে। চোখে যে কোন সমস্যার জন্য আধুনিক পদ্ধতিতে পরীক্ষানিরীক্ষা করার পরে এখানে চিকিৎসা প্রদান করা হয়। আধুনিক মেশিনের মাধ্যমে চোখের অপারেশনের ব্যবস্থা রয়েছে যার ফলে রক্তপাত ব্যান্ডেজ এর প্রয়োজন পড়ে না এখন এবং তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে ওঠে চোখ অপারেশন করা রোগী গুলো। 

জাপানবাংলাদেশ হাসপাতালের নবজাতক শিশুদের জন্য আলাদা ইউনিট এর ব্যবস্থা রয়েছে। এই হাসপাতলে আরো রয়েছে অর্থোপেডিক্স রোগীদের জন্য চিকিৎসার ব্যবস্থা। আধুনিক এক্সরে মেশিনের মাধ্যমে অর্থোপেডিক্স এর সকল রোগীকে চেকআপ করা হয়। 

অর্থোপেডিক্স এর সকল রোগীকে এখানে আধুনিক মেশিনের মাধ্যমে অপারেশনের ব্যবস্থাও করা হয়। যেসকল রোগীদের হাঁটুর হাড় ক্ষয় গিয়েছে মেরুদন্ডের হাড়ের সমস্যা তাদের জন্য এখানে রয়েছে বিশেষ রকমের চিকিৎসার ব্যবস্থা। 

জাপানবাংলাদেশ হাসপাতালের রয়েছে ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য চিকিৎসার ব্যবস্থা। ডায়াবেটিস রোগীদের ভালোভাবে পরীক্ষানিরীক্ষা করে এখানে চিকিৎসা প্রদান করা হয় এবং কিছু নিয়মনীতি দেয়া হয় যেগুলো মেনে চললে ডায়াবেটিস স্বাভাবিক ভাবে জীবনযাপন করতে পারে। আবেটিস একেবারে ভালো হয় না তবে এটা নিয়ন্ত্রণে  রাখলে বেশ ভালো থাকা যায়। 

আপনাদের যাদের এই সমস্যা রয়েছে তারা আমাদের ওয়েবসাইট থেকে আমাদের ওয়েবসাইট থেকে জাপান বাংলাদেশ হাসপাতাল এর ডাক্তারদের সাথে যোগাযোগের মাধ্যম পেয়ে যাবেন। এই হাসপাতালেই খুবই উন্নত মানের চিকিৎসা হয় যার ফলে খুব তাড়াতাড়ি সবাই সুস্থ হয়ে ওঠে। হয়রানি ছাড়া আপনারা আমাদের ওয়েবসাইট থেকে সকল তথ্য পেয়ে যাবেন ডাক্তারদের এবং যোগাযোগ করে চিকিৎসা গ্রহণ করতে পারবেন।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত লেখা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *