ওষুধ খাওয়ার নিয়ম

বমির ওষুধ খাওয়ার নিয়ম

মানুষ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে থাকে এবং মানুষের প্রতিটা রোগের ধরন আলাদা আলাদা হয়। যেমন কিছু কিছু রোগের মানুষের অনেক বেশি বমি হয় আবার কিছু কিছু রোগে মানুষের শারীরিক দুর্বলতা তৈরি হয়। তবে আজ আমরা আপনাদের বমির ওষুধ খাওয়ার নিয়মের বিষয়ে কিছু কথা বলতে এসেছি এখান থেকে আপনি কিছু তথ্য সংগ্রহ করতে পারবেন যেগুলো বমি হলে আপনি তাৎক্ষণাৎ আরাম পাবেন এবং বমি থেকে রক্ষা পাবেন। 

বমি নানা রকম ভাবে হতে পারে যেমন অনেকেই গাড়িতে উঠতে পারে না তাদের গাড়িতে উঠলেই বমি হয় এবং এতটাই বমি হয় যেন তারা দুর্বল হয়ে পড়ে এবং অসুস্থ হয়ে পড়ে। সেক্ষেত্রে আপনি কি করবেন। যে সকল মানুষরা গাড়িতে চড়তে পারে না তারা গাড়িতে ওঠার আধাঘন্টা আগে দুটো বমির ওষুধ খেয়ে নিলে অনেকটা আরাম পাবে এবং তাদের জার্নি ভালোভাবে হবে কোন বমি হবে না যার ফলে তাদের শরীরের এনার্জি কমবে না। 

অনেক সময় বদহজমের কারণে বমি হয় এবং এতটাই বমি হয় যে মানুষের মধ্যে অস্থিরতা কাজ করে এবং অনেক বেশি দুর্বল হয়ে পড়ে সে ক্ষেত্রে আপনাকে তাৎক্ষণাৎ ডাক্তারের কাছে নিয়ে যেতে হবে না হলে ঘরোয়া কিছু পদ্ধতিতে আপনাকে বমি বন্ধ করতে হবে। বমি হলে মানুষ এমনিতেই দুর্বল হয়ে পড়ে এবং বমি করতে করতে অনেক সময় মানুষের মুখ দিয়ে রক্ত বের হয়ে যায় সেজন্য এটাকে গুরুত্ব দিতে হবে এবং খুব তাড়াতাড়ি বন্ধ করার ব্যবস্থা করতে হয়। 

আবার অনেক সময় ভুল ওষুধ সেবনের মাধ্যমে মানুষের মাথা ঘুরায় এবং বমি হয়ে যায় সেক্ষেত্রে আপনাকে ওষুধ সেবনের ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে। সবুজ এলাচ বমি বমি ভাব এর চিকিৎসায় ব্যবহার করা যেতে পারে। সবুজ এলাচ খেলে বমি বন্ধ হয় যদি আপনার বমি বমি ভাব হয় তাহলে সামান্য মধু এবং এলাচ চাবিয়ে খেলে আপনার বমি বন্ধ হবে। 

লেবুর রস খেলে অনেক সময় বমি বন্ধ হয় কারণ লেবুতে রয়েছে ভিটামিন সি এবং খনিজ উপাদান যা বমি প্রতিরোধে সহায়তা করতে পারে এজন্য এক গ্লাস তাজা লেবুর শরবত পান করুন চাইলে লেবুর শরবতে মধু মেশাতে পারেন তাহলে আপনার তাৎক্ষণাৎ বমি বন্ধ হবে এবং আপনি আরাম পাবেন। বমি বন্ধ হওয়ার জন্য আপনি বাড়িতে থাকা লবঙ্গ খেতে পারেন কারণ লবঙ্গ খেলে বমি বন্ধ হয়। আপনি যদি কোথাও জার্নি করতে চান এবং সেখানে মোশন সিকনেস এর কারণে আপনার বমি হয় তখন আপনি লবঙ্গ যদি মুখের মধ্যে দিয়ে রাখেন বা চাবাতে থাকেন তাহলে আপনার আর বমি হবে না সে ক্ষেত্রে আপনার ওষুধ খাবার কোন প্রয়োজন পড়বে না যদি আপনার সাথে লবঙ্গ থাকে। 

আপনার যদি বমি বমি ভাব লাগে সেক্ষেত্রে আপনি বাড়িতে থাকা আদা এবং বেশি করে লিডার দিয়ে চা বানিয়ে খেলে দেখবেন আপনার পেটের ব্যথা কমেছে এবং বমি বমি ভাবটাও চলে গিয়েছে। অনেক সময় বমির সাথে অতিরিক্ত পেটের ব্যথা হয় এবং মানুষকে খুব যন্ত্রণা হয় সে ক্ষেত্রে আপনি এগুলো এপ্লাই করতে পারেন। আবার বমি হবার সময় যদি আপনার বাসায় স্যালাইন থাকে তাহলে আপনি কিছুটা স্যালাইন গুলি খেয়ে নিতে পারেন তাতে আপনি একটু হলেও আরাম পাবেন। 

অনেক সময় যখন বাড়িতে কিছুই না থাকে তখন আপনি লবণ এবং চিনির পানি খেয়ে বমি বন্ধ করতে পারেন। অনেক সময় মানুষের ডিহাইডেশন হয়ে যায় যার ফলে ডায়রিয়া এবং বমি একসাথে হতে থাকে সে ক্ষেত্রে আপনি যদি লবণ এবং চিনির পানি খান তাহলে দ্রুততম আপনার বমি বন্ধ হবে এর জন্য আপনাকে এক গ্লাসে সামান্য পরিমাণ চিনি এবং লবণ মিশে পানি পান করতে হবে এবং দেখবেন খুব তাড়াতাড়ি আপনার বমি বন্ধ হবে এবং আপনার শরীরে এনার্জি চলে আসবে।তবে আপনার নিকটস্থ যদি কোন হাসপাতাল থেকে থাকে তাহলে আপনি সে হাসপাতালে  চিকিৎসা গ্রহণ করতে পারেন। 

আরো দেখুন

সম্পর্কিত লেখা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *